ইগের অভিশাপ

অন্ধকারের মধ্যে একটু ভাল করে দেখতে হয়, একটা মানুষের অবয়বের মতো কিছু যেন পড়ে রয়েছে সেই বেদির উপর। অবয়বটা একবার নড়ে চড়ে উঠলো যেন। মৃদু শিসের শব্দটা এবার একটু জোড়ালো হয়েছে। মিঃ রোজারের হৃদ- স্পন্দন দ্রুত হয়ে গেছে তা তিনি আঁচ করতে পারছেন। এবার তিনি স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছেন জানোয়ারটাকে। দূর থেকে দেখলে প্রথমে মানুষ ভেবে ভুল করতে হয়। কিন্তু একটু লক্ষ্য করলে বোঝা যায়, কোমরের উপরিভাগ মানুষের মতো হলেও কোমরের নীচে পা নেই। তার জায়গায় এক মস্ত বড় আঁশযুক্ত লেজ রয়েছে। যা হিলহিলিয়ে জলের উপর মৃদু তরঙ্গ সৃষ্টি করছে জানোয়ারটা।

লেখক ~ সুদীপ্ত নস্কর
#AnariMinds #ThinkRoastEat

শেষ চিঠি

হঠাৎ’ খাটটা একটু নড়ে উঠল। খাটে কেউ বসলে যেমন ভাবে নড়ে উঠে ঠিক তেমন। পা থেকে মাথা অবধি এক হিমেল স্রোতের প্রবাহ অনুভব করলাম। খুব সন্তর্পণে দম বন্ধ করে ক্ষীণ চোখ খুলে দেখে সারা শরীর অবশ হয়ে গেল। খাটের উপর পায়ের কাছে বসে অবিনাশ, আমার দিকে এক দৃষ্টে চেয়ে আছে। তার চোখ দুটি জ্বলন্ত ভাটার মত লাল হয়ে জ্বলছে। ক্ষুধিত বাঘের মত ক্ষিপ্র ভাবে সে আমার মাথার কাছে সরে এসে মুখের কাছে ঝুঁকে এলো, বিদ্যুৎ খেলে গেল শিরা উপশিরায়।

লেখক ~ সুদীপ্ত নস্কর
#AnariMinds #ThinkRoastEat

তরল রহস্য

ঢিবির একপ্রান্তে আমি আর একপ্রান্তে ফ্র‍্যাঙ্ক। আমি ক্যামেরাটা তাক করে সুইচটা টিপে দিলাম হয়তো ছবিটা ঠিক উঠলো না, কারণ উত্তেজনায় আমার হাতটা তখনও ঠক ঠক করে কাঁপছে। এই অবস্থায় প্রথম শর্টে স্পষ্ট ছবি উঠবে সে কথা কল্পনা করাই বোকামি। সঙ্গে সঙ্গে এক চোখ ঝলসানো ফ্ল্যাশের আলোয় কয়েক সিকি সেকেন্ডের জন্য প্রগাঢ় অন্ধকারের নিকষ ঘনত্ব চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে গেল। আকস্মিক উজ্জ্বল আলোর ঝলকে সাময়িক বিচলিত হওয়ার পরই জানোয়ারটি আমাদের দিকে ক্ষিপ্রদৃষ্টে কিছুক্ষণ চেয়ে রইল।

লেখক ~ সুদীপ্ত নস্কর
#AnariMinds #ThinkRoastEat

জোকার

– ক্লাইম্যাক্সটা ঝুলিও না। তীরে এসে তরী ডোবানোর মত, ওই নোলান ছোঁড়াটা যেমন আমাকে টাঙিয়ে দিলে একটা দশতলা বাড়ি থেকে! ওটা বড্ড গায়ে লাগে।

– আহা, তা সাড়ে আটশ ফিটের গ্ল্যামারাস হাইরাইজ চলবে কী?

লেখক ~ সপ্তর্ষি বোস
প্রচ্ছদ ~ সৌমিক পাল
#AnariMinds

ইঁদুরদৌড়

সোজা কথা এই “কৃতী ছাত্র” নামক নাটকটি করে সামাজিক বিভেদ সৃষ্টি করার আমি খেলাপ।এটা করে কী লাভ?আপনার ব্যাচের টপটেন কে ট্র্যাক করেন আপনি?না নিজের সার্কেলেই থাকেন?

লেখক ~ দেবপ্রিয় মুখার্জী (গুলগুলভাজা)
#AnariMinds

মজার গ্রাম

আজব গাঁয়ে সবুজ ইদুর,
করত চুরি বেছে বেছে,
আরেক ছিল লালচে হুলো,
অলক্ষুণে কাঁদত মিছে।

কবি ~ দেবপ্রিয় মুখার্জী
#AnariMinds

কালপুরুষ

কেউ জানে না তিনি কে। তিনি নিজেও মাঝেমধ্যে মনে করতে পারেন না। ভুরুদুটো কুঁচকে মাঝেমাঝে মনে করার চেষ্টা করেন – শুধু হিজিবিজি কিছু ফর্মুলা ছাড়া কিচ্ছু মাথায় আসে না।

লেখক ~ নির্বাণ রায়
#AnariMinds #ThinkRoastEat

কপাল

আজব কাণ্ড, আজব ব্যাপার! গরীবেরা যে যমের অরুচি সে-কথাটাকেই সপ্রমাণ করে মাসখানেক পরে বুঁচি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি এসেছিল। কেউ ভাবেনি, সবাই আশা ছেড়ে দিয়েছিল।

লেখিকা~ পিউ দাশ 
#AnariMinds #ThinkRoastEat

I Told You…

She forwarded again… there was a rhythmic snore now; more clear than earlier. She was about to turn it off in frustration, when something else caught her attention.

Athour – Snigdha Sahoo
#AnariMinds #ThinkRoastEAt