৭২ ঘন্টা

ওটির বাইরে স্তব্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলো জাহ্নবী। সায়নের দাদা আর বাবা উদ্বিগ্ন হয়ে ডাক্তারের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। আত্মীয় বন্ধু হৈতেষীদের ক্রমাগত আগমন ও অনর্গল বাক্যস্রোতে দমবন্ধ লাগছিলো। পৃথিবী টা এক এক বার ফ্রিজ হয়ে যাচ্ছে মনে হচ্ছে। আবার স্টার্ট আবার ফ্রিজ…

ইকবাল

আমাদের ছাদের পাঁচিল, বারান্দার পাঁচিল সবই এত উঁচু যে বাইরে থেকে কিছু দেখা যায়না। গায়ে লাগা বাড়িগুলোয় জানালা দিয়ে মা কাকিমাদের কথা হলেও রাস্তায় বেরিয়ে আড্ডা গল্পের চল নেই একদম। ব্যতিক্রম রাসুদিদা। রাসুদিদা সারাটাদিন একতলার রোয়াকে বসে পথচলতি মানুষের খবর নেন।

বাঁদরনাচ

এ রামোঃ! পুঁটলি কোথায়? এ তো একটা বাঁদর! ওই তো, আরেকটা বাদামীর ওপর হলুদ চকরাবকরা পুঁটলিও নড়ছে। দুটো বাঁদর, মানে একটা বাঁদর আর আরেকটা বাঁদরী। অন্তত ওদের বেশভূষা তাই বলছে।

লেখিকা ~ সুস্মিতা কুণ্ডু

ঢিলে ইস্ক্রুপ

হ্যাঁ আজই, ও দিকে ব্যাটা গেঁজেল ভোলানাথ বসে আছে তার জাংকইয়ার্ড নিয়ে। আমার অপারেশনাল স্ফিয়ার থেকে বেরুলেই খপাত করে যন্তর গুলো ধরে ক্রাশারে ভরবে।

লেখক ~ সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়

স্বপ্নের দোসর

একজন মানুষ তার গোটা জীবনে ছ’বছর স্বপ্ন দেখেই কাটিয়ে দেয়। তার অনেকটাই তার মনেও থাকে না, স্বপ্নটা মস্তিস্কের কোন অংশে তৈরি হয় তা আজ অবধি কারোর বোধগম্য হয়নি, কেউ ঠিক জানেও না স্বপ্ন মানুষ ঠিক কেন দেখে, অনেকে বলে অন্য মনের ইচ্ছাগুলো থাকে তাতে, বা ভয়, অনেক সময় কামও।

লেখক ~ অনির্বাণ ঘোষ

আরোগ্য

আজ যেন বড় ক্লান্ত দেখাচ্ছে ওকে। এলোমেলো মাথার চুল, গাল ভর্তি দাড়ি। চোখের তলায়ও কালি পড়েছে ; বুঝলাম অত্যাধিক দুঃশ্চিন্তায় রাত জাগার ফল এটা। শরীরও ভেঙেছে এ কয়েকদিনে। তবে, এসবের মধ্যেও তার চোখে একটা চাঞ্চল্যের ভাব লক্ষ্য করলাম।

লেখক ~ সুদীপ্ত নস্কর
#AnariMinds

ইচ্ছেডানা

আমি গাড়ি চড়তে খুব ভালোবাসি, ছোটবেলায় বাবার গাড়িতে উঠলে আর নামতে চাইতাম না, গাড়ি সিগন্যালে দাঁড়ালে মাকে মারতাম যেন মায়ের জন্যই গাড়িটা চলছে না – আসলে গাড়িটা চললে আশেপাশের সব কিছু মুভিং লাগতো আমার, গাছ বাড়ি গাড়ি দোকান সাইকেল লোকজন সবাই পেছনে সরে সরে যাচ্ছে – আর দাঁড়িয়ে থাকলে খুব অস্বস্তি হতো।

লেখক ~ ছন্দক চক্রবর্তী
#AnariMinds

নতুন জুতা

– তুমার কনও গ্য়িয়ান যে কবে হবেক কে জানে! – ক্যানে? কী হইছে? – মাঝরাত পেরায়ে গ্যাছে সে খেয়াল আছে তুমার, নাকি কলকেতা যেয়ে সিটাও ভুলছ? – শুনঅ ত আগে। […]

ভূমি

এলাকার প্রজন্মের পর প্রজন্মের শিশুকিশোরদের বুড়ির পেছন পেছন ছড়া কাটতে কাটতে যাওয়ার মতো ফ্রিএর বিনোদন আর নেই বললেই চলে। আস্ত শরীরটা কিছুক্ষণ উত্তক্ত করলেই দেখতে পাওয়া যায়। কুঁচকে, চিমড়ে যাওয়া হাড্ডিসার দেহের মধ্যে আঁটোসাটো বুকজোড়া বেমানানরকমের পুষ্ট।

লেখিকা ~ শিল্পী দত্ত
#AnariMinds